‘নগদ’-এ বদলে গেল জীবন! | Nagad

তথ্যপ্রযুক্তি দিনকাল বাংলাদেশ

সরাফত আলী জীবন সংগ্রামী জয়ী একজন ব্যাক্তি। সৌদি আরব চাকরি জীবনে ইতি টেনে দেশে ফিরে একটি পুরানো গাড়ি কিনে ভাড়ায় ব্যবসা চালাতে শুরু করেন। কিন্তু লাভের মূখ দেখতে পান না।

এক বন্ধুর সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেন, সব কিছু বিক্রি করে স্টেশনারী আর মোবাইল রির্চাজ একটা দোকান দিবেন। দিলেন ও সে দোকান তার কিছু দিনের মধ্যেই হঠাৎ সরাফত আলীর ছেলের রিদপিন্ডে রোগ ধরা পরে। সেই কারণে দিশে হারা হয়ে পরেন। তার পক্ষে ছেলের জন্য চিকিৎসা দায়িত্ব বহন করার সম্ভব না কিন্তু ঔষধ দিয়ে ঐ রোগ ছাড়া সম্ভব না। দূর বিস জীবনে এই সময় আলোর পথ দেখায় নগদ। এক বন্ধু পরামর্শে অন্য ব্যবসা পাশাপাশি নগদ সেবা চালু করেন সরাফাত আলী। মানুষ নগদ এর প্রতি ভালোই অকৃষ্ট হন।

নগদ এর কমিশন বেশি আর দ্রুত পাওয়া যায় বলে গ্রাহক রা এগিয়ে আসেন নগদে। ব্যবসা কয়েক মাসে ভালো টাকা জমান সরাফাত আলী সেই টাকা এবং আগে জমানো টাকা এক সাথে করে ছেলের অপারেশন টাকা জোগার হয়ে যায়। ভারতে এক সুনাম ধন্য ডাক্তার মাধ্যমে তার ছেলের অপারেশন হয়।

সরাফত আলী জানানঃ অন্য অন্য যে অপারেটর গুলো এবং মোবাইল ব্যাংকি থেকে যা টাকা আসতো সব টাকা দিয়ে আমি আমার ছেলে অপারেশন করি, কিন্তু অন্য সার্ভিস প্রবাইডার তুলনায় নগদ থেকে আমার বেশি লাভ হয়েছে। নগদ উঠানোর খরচ কম হওয়ায় উপকার হচ্ছে অনেকে

নগদ বদলে দিয়েছেন সরাফত আলী জীবন। এখন তার পরিবার খুব ভালো আছেন, তিনি কখনো ভাবেন নাই যে ডিজিটাল সেবা মানুষকে এমন ভাবে বদলিয়ে দিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.