করোনার নাজুক পরিস্থিতির মধ্যে বাংলাদেশে ২১ কোটি ডোজ ভ্যাক্সিন নিশ্চিত করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনার নাজুক পরিস্থিতির মধ্যে বাংলাদেশে ২১ কোটি ডোজ ভ্যাক্সিন নিশ্চিত করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক দিনকাল বাংলাদেশ

যমুনা ওয়েব ডেস্কঃ করোনার দ্বিতীয় ঢেউ অব্যাহত । এরই মধ্যে করোনার নতুন ভ্যারিয়েণ্ট ডেল্টার হাত ধরে তৃতীয় ঢেউয়ের হাতছানি । এই পরিস্থিতিতে দেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন জানালেন, ২১ কোটি করোনা ভ্যাক্সিনের ডোজ নিশ্চিত করা গেছে । যার মধ্যে চীনের ৩ কোটি, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ৩ কোটি, কোভ্যাক্সের ৭ কোটি ডোজ, রাশিয়ার ১ কোটি ডোজ ও জনসন অ্যান্ড জনসনের ৭ কোটি ডোজ রয়েছে।

প্রায় এক মাস ধরে বাংলাদেশ সরকার করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রনে শাটডাউনের পথে হাঁটতে বাধ্য হয়েছে । বিশেষজ্ঞদের মতে করোনার প্রতিরোধ করতে একমাত্র টিকাকরনের উপর জোর দিতে হবে । সেই সাথে সঠিকভাবে করোনা বিধিকে মান্যতা দিতে হবে । অথচ, বাংলাদেশে লাখ লাখ মানুষ করোনার প্রথম ডোজ নেবার পর দ্বিতীয় ডোজের জন্য প্রতীক্ষায় আছেন । কিন্তু করোনা ভ্যাক্সিনের অপ্রতুলতা স্পষ্টভাবে প্রকাশিত । এই অবস্থায় স্বাস্থ্য মন্ত্রীর তরফ থেকে ২১ কোটি করোনা ভ্যাক্সিনের ডোজের নিশ্চিতকরন অনেকটা স্বস্তি নিয়ে এল । 

গতকাল শনিবার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ এসোসিয়েশনের সদস্যভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলির সাথে ভার্চুয়াল আলোচনায় বসেন । সেই সভায় তিনি এই ২১ কোটি ভ্যাক্সিনের কথা জানিয়েছেন । গতকালের সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আগামী বছরের সেকেন্ড কোয়ার্টারের মধ্যে জনসনের ভ্যাকসিন দেশে আসবে। এই ২১ কোটি ডোজ যদি সমযমত পাই তাহলে ৮০% মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়া যাবে।” এদিন তিনি আরও জানান, করোনাভাইরাস মহামারিতে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে দায়িত্বপালনকারী চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী, সেনাবাহিনী, পুলিশ ও শিক্ষক এদের আগে টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া তাদের পরিবারের আঠারো বছরের ঊর্ধ্বে যেসব সদস্য আছে তাদেরকেও টিকাদান কার্যক্রমের আওতায় আনা হবে।” 

Leave a Reply

Your email address will not be published.